ইসরায়েলের বিজ্ঞানীরা কৃত্রিম ভাবে হৃদযন্ত্র প্রস্তুত করেছেন

Heart normal anterior exterior anatomy

Reading Time: 2 minutes

কলমে শুভ্রা অধিকারী, অক্ষরদানে-মোনালিসা মহান্ত। নিউক্র‍্যাড হেলথ বাংলার নিজস্ব প্রতিবেদন

মেডিকেল সায়েন্স আরো একধাপ সাফল্যের দিকে এগিয়ে গেল। মলিকিউলার সেল বায়োলজি ও বায়োটেকনোলজি বিভাগ; তেল আভিভ ইউনিভার্সিটির চিকিৎসকেরা, রোগীর থেকে জৈব টিস্যু ব্যবহার করে মানুষের হৃদযন্ত্রের 3D ছবি মুদ্রন করতে সক্ষম হয়েছেন। এই অসাধারণ কৃতিত্ব ভবিষ্যতে অপরিসীম প্রভাব ফেলবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। তেল আভিভ বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগীদের জন্য এটি গর্বের ব্যাপার, এর আগে বিজ্ঞানীরা কোনও ​​কৈশিকনলের ব‍্যবহার ছাড়া কেবলমাত্র সাধারণ কোষ এবং টিস্যুর 3D-মুদ্রণ করতে সক্ষম হন। মলিকিউলার সেলবায়োলজি ও বায়োটেকনোলজি কলেজের প্রধান অধ্যক্ষ ও অধ্যাপক তালভীর, 15 এপ্রিল 2019-এ একটি সংবাদ সম্মেলনের আহ্বান জানান এবং প্রকাশ করেন যে এক দশকের মধ্যেই 3D প্রিন্টেড মানব হৃদয় গুরুতরভাবে অসুস্থ রোগীদের জন্য হাসপাতালগুলিতে পাওয়া যাবে। । এছাড়াও দল তাদের গবেষণার ফলাফল অ‍্যাডভান্সড সায়েন্স নামের একটি কাগজ প্রকাশ করেছেন।

তেল আভিভ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা কীভাবে 3D মুদ্রন করে হার্টের কাঠামো ফুটিয়ে তুলেছেন?
তেল আভিভ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা রোগীর নিজস্ব জৈব পদার্থ থেকে তৈরি একটি কালি থেকে তৈরি 2.5 সেন্টিমিটার দীর্ঘ মানব হৃদয় মুদ্রণ করতে প্রায় তিন ঘন্টা সময় নিয়েছেন। গবেষক রোগীর দেহ থেকে ফ্যাটি টিস্যু সংগ্রহ করে এবং তারপর সেটি সেলুলার এবং নন-সেলুলার অংশে বিভক্ত করে। এরপর, গবেষকরা ‘স্টেম কোষ’ হিসাবে কাজ করার জন্য কোষগুলিকে পুনর্গঠিত করেন এবং সিস্টেম অফ থেকে হার্ট তৈরি করবার কোষে রূপান্তরিত করে। তারা এই টিস্যুর নন-সেলুলার অংশ ব্যবহার করে একটি জেল বানান; যা 3D-হার্ট মুদ্রণের জন্য কালি হিসাবে পরে ব‍্যবহার করা হয়েছে। যদিও এই হৃর্ট একটি খরগোশের হার্টের আকারের, তবুও এর সমস্ত রক্তবাহী নালী, অ‍্যরলিকেল্ এবং ভেন্ট রিকল গুলো অক্ষত। যেহেতু এই অঙ্গগুলি 100 শতাংশ জৈব যৌগিক এবং রোগীর সাথে মিলিত, তাই শরীরের দ্বারা প্রত্যাখ্যাত হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে।

3D-মুদ্রিত হৃদযন্ত্র কীভাবে কাজ শুরু করবে?

বিজ্ঞানীরা যে ছোট্টো আঙুরের আকারের হৃদযন্ত্র প্রস্তুত করেছেন সেটি এখনও নিজে নিজে রক্তের পাম্প করার জন্য প্রস্তুত নয়। গবেষকরা এটি মানুষের দেহে ব‍্যবহার করখর আগে অত্যন্ত উন্নত যান্ত্রিক এবং জৈবরাসায়নিক পদ্ধতিগুলির সাথে পরীক্ষাগারে এটিকে সঠিকভাবে তৈরি করে নেবেন। প্রথমত, তারা বৈদ্যুতিক এবং যান্ত্রিক সংকেত ব‍্যবহার করে 3D-মুদ্রিত হৃদযন্ত্র প্রস্তুত করতে শুরু করবেন। এটি একটি খুব সূক্ষ্ম প্রক্রিয়া এবং মনে করা হচ্ছে প্রত্যাশিত ফলাফল অর্জন করতে মোটামুটিভাবে এক মাস লাগবে।

তবে এই হার্ট আকারে খুবই ছোটো তাই বিজ্ঞানীরা চেষ্টা করছেন এমন একটি কৌশল খুঁজে বের করতে, যা মানুষের আকারের হৃর্ট তৈরি করা যায়। শুরুতে, এটি পরীক্ষাগারে তৈরি করা হবে; তারপর এটি সমস্ত সিস্টেমে সঠিক ভাবে রক্ত পাম্প করতে পারছে কিনা তা পশুদের উপর পরীক্ষা করা হবে। একটি নির্দিষ্ট সংখ্যা সফল সফলতার পরে, এটি মানুষের শরীরের এটি চালু হবে। সুতরাং, বর্তমান পরিস্থিতি অনুযায়ী, মানুষের জন্য ব‍্যবহার করার আগে বিজ্ঞানীদের এখনো আরো কিছু সময়ের জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

3D-মুদ্রিত হৃদযন্ত্রের সম্পর্কে বিজ্ঞানী মহলে প্রতিক্রিয়া কি?

বৈজ্ঞানিক সম্প্রদায়ের সকল সদস্য কিন্তু এই 3D-প্রিন্টিং মানুষের হার্টের বিষয়ে খুশি নন। বিশেষজ্ঞদের এই ধরনের প্রযুক্তির ব‍্যবহারের নৈতিক প্রভাবগুলি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। এই ধরনের প্রযুক্তির ব্যবহার ধনী ও দরিদ্রের চিকিৎসার ক্ষেত্রে ব‍্যাপক প্রভাব ফেলবে কীনা সে বিষয়ে আলোচনা চালাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

আরো একটি ভাবনার বিষয় হল কোন ক্ষেত্রে এ ধরনের টেকনোলজির ব্যবহার করা হবে কিনা কারণ একটু মিউটেশন ঘটে কিন্তু সুপার হিউম্যান হার্ট তৈরি করা সম্ভব। রবি বারম্যান, হ্যালেকি অর্গ্যান ডোনার সোসাইটির পরিচালকও টাইমস্ অফ্ ইসরাইল পত্রিকায় তার উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তিনি জানিয়েছেন এই আবিষ্কার মানবদেহে ব্যবহার করা সম্ভব হলে, তাহলে তো আর্গ‍্যান ডোনেট করার আরকোনো প্রয়োজনি হবে না; তবে মানবদেহে ব্যবহার করার আগে কিন্তু এই বিষয়ে অনেক গবেষণা করার এখনো প্রয়োজন আছে।

তাহলে এই মুহূর্তে আমাদের বিজ্ঞানীদের ওপর আস্থা রাখা ছাড়া আর কিছুই করার নেই, যাতে এই গবেষণা সফল হয় এবং হাজার হাজার মানুষ এর সুফল ভোগ করতে পারে।

Write your comments

%d bloggers like this: