গলব্লাডার স্টোনঃ কারন ও তার চিকিৎসা

Reading Time: 3 minutes

ডঃ শুভময় ব্যানার্জী, পি.এইচ.ডি September 22, 2021 Neucrad Health Desk http://www.fb.com/neucradhealthbengali

আমাদের শরীরে গলব্লাডার বা পিত্তথলি লিভারে তৈরি হওয়া পিত্তকে সাময়িক ভাবে সঞ্চয় করে। পিত্ত ক্ষুদ্রান্ত্রে পৌঁছে খাদ্য পরিপাকে সাহায্য করে থাকে। এই পিত্তে বিলিরুবিন এবং কোলেস্টেরল দুটি উপাদান বেশী পরিমানে সঞ্চিত হতে থাকলে কখনো কখনো তা জমে শক্ত হয়ে পিত্তথলির পাথর বা গলব্লাডার স্টোন তৈরি করে। এই স্টোন আকারে খুব ছোট থেকে বেশ বড় হতে পারে এমনকি সংখ্যায় তারা একাধিক হতে পারে। বড় গলস্টোন পিত্তনালী বা বাইল ডাক্টের পথে বাধা সৃষ্টি করলে, ব্যাথা, যন্ত্রণা, পরিপাকের সমস্যা ইত্যাদি উপসর্গ দেখা দেয় এবং এই অবস্থায় সঙ্গে সঙ্গে গলস্টোন অপারেশান করার দরকার পড়ে।

কি কি ধরনের গলস্টোন হতে পারে? 

গলস্টোন সাধারনত দুই প্রকারের হয়। যেমন-

  • কোলেস্টেরল গলস্টোনঃ প্রায় ৮০ শতাংশ গলস্টোন এই প্রকার। পিত্তে অত্যাধিক কোলেস্টেরল থাকলে, হলুদ-সবুজাভ গলস্টোন দেখা দেয়। 
  • পিগমেন্ট গলস্টোনঃ পিত্তে বেশী মাত্রায় বিলিরুবিন সঞ্চিত হতে থাকলে আকারে ছোট এবং গাড় বর্ণের পিগমেন্ট গলস্টোন হতে পারে।

গলস্টোনের উপসর্গ কি কি?

  • পেটের উপরিভাগে, ডানদিকে পাঁজরের নিচে ব্যাথা
  • পিঠে ও ডানকাঁধে ব্যাথা
  • বমি, ডায়েরিয়া, হজমের অসুবিধা, গ্যাস ও বুকজ্বালা 
  • দীর্ঘস্থায়ী পেটে ব্যাথা
  • জ্বর ও কাঁপুনি
  • চোখ ও চামড়ায় হলুদ ভাব
  • প্রস্রাবের রঙ কালো এবং মলের রঙ ফ্যাকাসে হয়ে যাওয়া

কি কি কারনে গলস্টোন হতে পারে?

  • সাধারন অবস্থায় পিত্তথলির সঞ্চিত পিত্তে কোলেস্টেরল থাকা উচিত নয়। কোলেস্টেরল পিত্তে দ্রবীভূত হয়ে যাবার কথা। কিন্তু, বেশী মাত্রায় ফ্যাট জাতীয় খাবার খেলে, কোলেস্টেরল পিত্তে সঞ্চিত হতে পারে আর তা জমে কঠিন হয়ে গলস্টোন হয়। 
  • লিভারে সংক্রমণ, সিরোসিস, জন্ডিস ইত্যাদি হোলে, লিভার বেশীমাত্রায় বিলিরুবিন তৈরি করতে থাকে। এই পিত্তরঞ্জক জমে কঠিন হয়ে গলস্টোন তৈরি করতে পারে।
  • কাদের গলস্টোন হবার সম্ভাবনা বেশী?
  • অনেক ক্ষেত্রে পরিবারে জটিল অন্ত্রের রোগ হবার ইতিহাস থাকলে গলস্টোন হতে পারে
  • চল্লিশোর্ধ মহিলাদের গলস্টোন হতে বেশী দেখা যায়
  • ওবেসিটি থাকলে ও স্থবির জীবন-যাপন করলে গলস্টোন হবার সম্ভাবনা অনেক বেশী নিয়মিত যারা খাদ্যে বেশী ফ্যাট জাতীয় খাবার খান এবং কম ফাইবার জাতীয় খাবার গ্রহন করেন
  • অপরিমিত জল পান করলে
  • যে সব মহিলা জন্ম-নিরোধক পিল, হরমোন রিপ্লেসমেনন্ট থেরাপি করান তাদের গলস্টোন হবার সম্ভাবনা থাকে
  • দীর্ঘকালীন যারা ডায়েবেটিস ও ক্রন’স ডিসিসে ভুগছেন
  • অনিয়মিত উপবাস এবং ডায়েট করে যারা স্বল্প সময়ে ওজন কমাতে চান, তাদের ক্ষেত্রেও গলস্টোন হবার সম্ভাবনা থাকে

কিভাবে গলস্টোন আছে কিনা জানা যায়?

প্রাথমিক ভাবে রক্ত পরীক্ষা করার পরে, আলট্রাসাউন্ড, সিটি স্ক্যান, এন্ডোস্কোপি, এমআরআই স্ক্যান, হিডা স্ক্যান ইত্যাদি করে গলস্টোন আছে কিনা তা জানা যায়। এরপরে মেডিসিন ব্যাবহার করে এবং প্রয়োজনে সার্জারি করে গলস্টোন সমেত ক্ষতিগ্রস্থ পিত্তথলি বাদ দেওয়া হয়। 

গলস্টোনের কারনে গুরুতর শারীরিক সমস্যা কি কি হতে পারে?

  • অ্যাকিউট কোলেসিসটাইসিস বা গলব্লাডারে প্রদাহ হতে পারে। গলস্টোন আকারে বেড়ে গিয়ে পিত্তথলিকে ফাটিয়ে দিতে পারে। এতে প্রবল যন্ত্রণা ও জ্বর আসে।
  • পিত্ত নালী ও প্যানক্রিয়েটিক নালী গলস্টোনের কারনে বাধাপ্রাপ্ত হলে, জন্ডিস ও প্যানক্রিয়াটাইটিস হতে পারে।
  • গলস্টোনের কারনে পিত্ত নালী বাধা পেয়ে কাজ করা বন্ধ করে দিলে, গলব্লাডারে সংক্রমণ হতে পারে। এই সংক্রমণ রক্তে বেশী মাত্রায় ছড়িয়ে পড়লে ‘সেপ্সিস’ হয়ে রোগীর মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। 
  •  গলস্টোন দীর্ঘদিন থাকলে কখনো তা গলব্লাডার ক্যান্সারে রূপ নিতে পারে।

কিভাবে গলস্টোন প্রতিরোধ করা যায়?

  • পরিমিত জল পান করতে হবে
  • খাদ্যে ফাইবার ও অলিভ অয়েল, ফিস অয়েল থাকলে গলস্টোনের সম্ভাবনা কমে
  • দৈনিক কিছু সময় ব্যায়াম করা ভালো
  • অকারনে, উপবাস ও কিটো ডায়েট করে ওজন কমানোর চেষ্টা না করাই ভালো
  • পরিবার-পরিকল্পনার জন্যে হরমোন পিলের ব্যাবহার কমানো উচিত
  • লিভার ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে এমন ড্রাগ ব্যাবহার বন্ধ করতে হবে

তথ্যসূত্রঃ

  1. Njeze GE. Gallstones. Niger J Surg. 2013;19(2):49-55. doi:10.4103/1117-6806.119236
  2. Jones MW, Weir CB, Ghassemzadeh S. Gallstones (Cholelithiasis) [Updated 2021 Mar 26]. In: StatPearls [Internet]. Treasure Island (FL): StatPearls Publishing; 2021 Jan-. Available from: https://www.ncbi.nlm.nih.gov/books/NBK459370/
  3. Gutt C, Schläfer S, Lammert F. The Treatment of Gallstone Disease. Dtsch Arztebl Int. 2020;117(9):148-158. doi:10.3238/arztebl.2020.0148
  4. Sanders G, Kingsnorth AN. Gallstones. BMJ. 2007;335(7614):295-299. doi:10.1136/bmj.39267.452257.AD
  5. Lee JY, Keane MG, Pereira S. Diagnosis and treatment of gallstone disease. Practitioner. 2015 Jun;259(1783):15-9, 2. PMID: 26455113.
Gastrointestinal diseases and challenges -Dr Suddhasattwa Sen
স্বাস্থ্য সচেতনতা আমাদের লক্ষ্য ।। চোখ রাখুন নিউক্র্যাড হেলথ বাংলা ফেইসবুক পেইজ এ
হেপাটাইটিস নিয়ে আলোচনা – ড: বিশ্বরূপ ঘোষ

Write your comments

%d bloggers like this: