অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধ ক্ষমতা শিশুদের শরীরে গড়ে উঠলে বিপদ বাড়ে – জানেন কি?

Reading Time: 2 minutes

ভারতবর্ষের প্রতিটি প্রান্তে যে ব্যধি টি হাজার হাজার শিশু মৃত্যুর কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে সেটি হল অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধ সূচক সংক্রমণ । দি সেন্টার ফর ডিসিস ডাইনামিক্স, ইকোনমিক্স & পলিসি (CDDEP) এর রিপোর্ট অনুসারে প্রতি বছর ৫৮,০০০ শিশুর মৃত্যু ঘটে এই ভারতে । ভারতীয় বাবা-মা এর জন্য এটি একটি চিন্তার বিষয় । এই সংক্রমণ থেকে সুরক্ষা পেতে আমাদের অ্যান্টিবায়োটিক এর প্রয়োগ এবং তার সাথে কি করে অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধ ক্ষমতা শিশুদের শরীরে গড়ে ওঠে তা সম্পর্কে সচেতন হতে হবে।

ব্যাকটেরিয়া ও ছত্রাক ঘটিত সংক্রমণ ব্যধির প্রতিরোধে অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহৃত হয় । শিশুদের ক্ষেত্রে বিভিন্ন রকম অসুস্থতা যেমন নিউমোনিয়া, মেনিনজাইটিস এবং সেপটিকেমিয়ার প্রতিরোধ করার ক্ষমতা রাখে এই অ্যান্টিবায়োটিক । কান এবং ত্বকের সংক্রামক ব্যাধি প্রতিরোধেও অ্যান্টিবায়োটিক সমান ভাবে সক্ষম ।

কখনো কখনো কিছু ব্যাকটিরিয়া ও ভাইরাস জনিত ব্যাধির উপসর্গ একই রকম হতে পারে যেটা বোঝা খুব-ই মুশকিল । শ্বাসনালির ব্যাধি থেকে হতে পারে সর্দি, কাশি, গলা ব্যাথা, কান ব্যাথা ইত্যাদি উপসর্গ হলো এর উদাহরণ । সাধারণ সর্দি এবং পেট ব্যথা থেকে হতে পারে ডায়রিয়া যেগুলো একটি ভাইরাস জনিত রোগ, একমাত্র শরীরের নিজস্ব অনাক্রম্যতা দ্বারা ই প্রতিরোধ করা সম্ভব ।

যখন এই অ্যান্টিবায়োটিক প্রয়োজনের অতিরিক্ত ব্যবহার করা হয় বা ঠিক মত ব্যবহার করা হয় না, এই সংক্রমণের জীবাণু গুলোর মধ্যে তখন অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে ওঠে। যে সব শিশুর মধ্যে এই অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে উঠেছে তাদের শরীরের রোগ সৃষ্টি কারী জীবাণু গুলোকে মারা কঠিন হয়ে ওঠে ।সেজন্য এটা খুবই জরুরি যে শিশুরা যেন চিকিৎসকের নির্দেশমতোই অ্যান্টিবায়োটিক এর সম্পূর্ণ ডোজ শেষ করে। কখনো কখনো ১-২ দিন ওষুধ খাওয়ার পর কিছুটা সুস্থ বোধ করলে সেটা আর সম্পূর্ণ করা হয় না । কিন্তু এর ফলে জীবাণু গুলো পুরোপুরি ধ্বংস হয় না এবং সেই ব্যাধিটি আবার হওয়ার সম্ভাবনা থেকেই যায়। তাই শিশুর বাবা-মা র অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধ ক্ষমতা সম্মন্ধে জানা খুবি প্রয়োজন । আসুন আমরা সকলে এটি শেয়ার করে সকলকে জানার সুযোগ করে দিই ।

Back to main website with English Version

 

1 thought on “অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধ ক্ষমতা শিশুদের শরীরে গড়ে উঠলে বিপদ বাড়ে – জানেন কি?

Write your comments

%d bloggers like this: