প্রস্টেট ক্যান্সার প্রতিরোধে সচেতন হোন

Reading Time: 4 minutes

ডঃ শুভময় ব্যানার্জী, পি.এইচ.ডি; নিউক্র্যাড হেলথ, জুলাই ১৫,২০২1

সারা বিশ্বে প্রস্টেট ক্যান্সার আক্রান্তের ও তাতে মৃত্যুর সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে।  ক্যান্সার গবেষণা সংস্থা IARC (International Agency for Research on Cancer) এর গ্লোবোক্যান ডেটাবেস থেকে ২০২০ সালের প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, প্রস্টেট ক্যান্সার প্রথম সারির দশটি ক্যান্সারের মধ্যে তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে। যা বিজ্ঞানী ও চিকিৎসকদের চিন্তার কারন হয়ে উঠেছে। এই পরিসংখ্যানের হিসাবে, এখনো পর্যন্ত বিশ্বে প্রতি বছর ৭.৩% মানুষ প্রস্টেট ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে থাকেন এবং তার মধ্যে ৩.৮% মানুষের মৃত্যু ঘটে থাকে। এই ক্যান্সার অনেক ক্ষেত্রে প্রথমে ধীর গতিতে বাড়তে শুরু করে এবং প্রাথমিক পর্যায়ে একে সহজে নির্ণয় করা যায় না। কিন্তু দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে শরীরে পড়া ‘মেটাস্ট্যাটিক প্রস্টেট ক্যান্সার’ এর নিয়ন্ত্রণ ও চিকিৎসা করা বেশীর ভাগ ক্ষেত্রেই প্রায় অসম্ভব হয়ে ওঠে। 

কিভাবে হয় প্রস্টেট ক্যান্সার? 

প্রস্টেট হোল পুরুষের শরীরে অবস্থিত জননতন্ত্রের অতি প্রয়োজনীয় একটি গ্রন্থি। আখরোট আকৃতির, মাত্র এক আউন্সের এই গ্রন্থি মূত্রথলির ঠিক নিচে, মূত্রনালীকে ঘিরে থাকে। প্রস্টেট গ্রন্থি বৃদ্ধি পেলে পুরুষের স্বাভাবিক মূত্র নির্গমন ব্যাহত হয়। এই গ্রন্থির সাথে যুক্ত থাকে সেমিনাল ভেসিকল, যার থেকে নিঃসৃত তরল প্রস্টেট গ্রন্থির ক্ষরণের সাথে মিশে বীর্য তৈরিতে সাহায্য করে। প্রস্টেট গ্রন্থির কোষগুলি অনিয়ন্ত্রিত ভাবে বৃদ্ধি পেতে শুরু করলে টিউমার তৈরি হয়। এই টিউমার সেমিনাল ভেসিকলেও ছড়িয়ে পড়তে পারে। তবে এই টিউমার নির্দোষ বা বিনাইন হতে পারে। এই ক্ষেত্রে, প্রস্টেট গ্রন্থি অস্বাভাবিক ভাবে বেড়ে যায়। একে চিকিৎসার পরিভাষায় বিনাইন প্রস্টেটিক হাইপারপ্লাসিয়া (Benign prostatic hyperplasia) বলে। এতে সামান্য ব্যাথা, অস্বস্তি ও জ্বর হতে পারে। মেডিসিনের সাহায্যে এই ধরনের অসুবিধা দূর করা যায়। তবে ম্যালিগন্যান্ট টিউমার বা প্রস্টেট ক্যান্সারের ক্ষেত্রে পরিস্থিতি পালটে যায়। যখন প্রস্টেট ক্যান্সার কোষ রক্তবাহ পথে শরীরের অন্য স্থানে পৌঁছে গিয়ে নতুন করে টিউমার তৈরি করে গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গে ক্যান্সার তৈরি করে, তাকে ‘মেটাস্ট্যাটিক প্রস্টেট ক্যান্সার’ বলে। 

File:Diagram showing the position of the prostate and rectum CRUK 358.svg
Image credit: cancer research, UK

প্রস্টেট ক্যান্সারের উপসর্গগুলি কি কি? 

প্রাথমিক পর্যায়ে প্রস্টেট ক্যান্সারের বিশেষ কোন উপসর্গ দেখা যায় না। কিন্তু, ক্যান্সার বৃদ্ধি পেলে, কিছু উপসর্গ প্রকাশ পায়। যেমন-

১)   রাত্রে বারে বারে প্রস্রাব পাওয়া

২) প্রস্রাব করার সময় বাধার সৃষ্টি হয়

৩) ক্ষীণ ও বিক্ষিপ্ত ধারায় প্রস্রাব হওয়া

৪) প্রস্রাব ও বীর্যপাতের সময় ব্যাথা ও জ্বালার অনুভূতি 

৫) প্রস্রাব ও বীর্যে রক্ত বার হওয়া 

৬) কুঁচকি, উরু ও পিঠের নিচে যন্ত্রণা

৭) ওজনহ্রাস ও ক্ষুধামান্দ্য

কি কি কারনে প্রস্টেট ক্যান্সার হতে পারে? 

  • গবেষণায় দেখা যায়, ৫৫ বছরের উপরে পুরুষের প্রস্টেট গ্রন্থির কোষের ডিএনএ অনু ক্ষতিগ্রস্ত হতে থাকে, ফলে দেখা দেয় নানা মিউটেশান। মিউটেশানের প্রভাবে কোষের সংখ্যা অনিয়ন্ত্রিত ভাবে বৃদ্ধি পেতে থাকে ও প্রস্টেট ক্যান্সারের সূচনা হয়।  
  • বেশী ধূমপানের ফলে দেখা যায় প্রস্টেট ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ে।
  • যাদের ওবেসিটি আছে তাদের ক্ষেত্রেও প্রস্টেট ক্যান্সারের ঝুঁকি বেশী।
  • অ্যাফ্রিকান-আমেরিকান মানুষদের মধ্যে প্রস্টেট ক্যান্সারের প্রবনতা বেশী দেখা যায়, কিন্তু হিস্পানিক, এশিয়ানদের মধ্যে এই রোগের প্রবনতা কম থাকে।
  •  পরিবারে কারোর প্রস্টেট ক্যান্সারের ইতিহাস থাকলে, অন্য সদস্যের এই রোগ হতে পারে বলে বিজ্ঞানীদের মত। 
  • বেশী চিনি ও প্রাণীজাত ফ্যাট বেশী খেলে প্রস্টেট ক্যান্সারের প্রবনতা বাড়ে।

কিভাবে প্রস্টেট ক্যান্সার নির্ণয় করা হয়?

চিকিৎসক সাধারনত রক্ত পরীক্ষায় প্রস্টেট স্পেসিফিক অ্যান্টিজেন (PSA) এর পরিমান মেপে ও ডিজিটাল রেকটাল এক্সামিনেশান (DRE) করে এই রোগের সম্পর্কে ধারনা করা যায়। তবে সম্পূর্ণ নিশ্চিত হতে আলট্রাসোনোগ্রাফি, সিটি স্ক্যান ও এমআরআই স্ক্যান করে দেখা হয়। প্রস্টেট ক্যান্সারের পর্যায় বুঝতে ‘প্রস্টেট বায়োপসি’ করা হয়। 

কিভাবে প্রস্টেট ক্যান্সারের চিকিৎসা করা হয়?

রোগীর বয়স, স্বাস্থ্য ও অন্যান্য কো-মরবিডিটি ফ্যাক্টরগুলি বুঝে চিকিৎসা শুরু করা হয়। প্রস্টেট ক্যান্সারের পর্যায় ও শ্রেণী চিহ্নিত করে কিছু বিশেষ চিকিৎসা পদ্ধতির সাহায্য নেওয়া নয়। যেমন-

  • রেডিওথেরাপির সাহায্যে ক্যান্সার কোষগুলিকে ধ্বংস করা হয়। রেডিয়াশানের প্রভাবে ক্যান্সার কোষের সাথে সাথে শরীরের সুস্থ কোষগুলিও ধ্বংস হতে থাকে। 
  • অনেকক্ষেত্রে, রেডিওথেরাপির বিভিন্ন কম্বিনেশানে ক্যান্সার ড্রাগ ব্যাবহার করে (কেমোথেরাপি) প্রস্টেট ক্যান্সারের চিকিৎসা করা হয়। 
  • প্রয়োজনে সার্জারি করে প্রস্টেট টিউমার বাদ দেওয়া হয়। যারা বয়স্ক রোগী বা কোন কারনে সার্জারির অসুবিধা আছে, তাদের ‘ক্রায়োথেরাপি’ বা ‘ক্রায়োঅ্যাব্লেশান করা হয়। এতে প্রস্টেট টিউমারে বিশেষ প্রোব প্রবেশ করিয়ে তাপমাত্রা ভীষণ কমিয়ে এনে নির্দিষ্ট পদ্ধতিতে ক্যান্সার কোষগুলিকে ধ্বংস করা হয়। তবে, সার্জারির পরে কোন কোন ক্ষেত্রে রোগীর দেহে সংক্রমণ, মেটাস্ট্যাটিক স্প্রেড, ইরেকটাইল ডিসফাংশান ইত্যাদি উপসর্গ দেখা দিতে পারে। 
  • হরমোন থেরাপির সাহায্যে প্রস্টেট টিউমারকে কমানো সম্ভব। 
  • আধুনিক চিকিৎসার মধ্যে প্রস্টেট ক্যান্সার ভ্যাকসিন ও ইমিউনোথেরাপির মাধ্যমে এই ক্যান্সারকে প্রতিরোধ করা সম্ভব। 

প্রস্টেট ক্যান্সার প্রতিরোধে খাদ্যাভ্যাস ও সুস্থ জীবনযাপন অতি প্রয়োজনীয়। প্রতিদিনের খাবারে টাটকা ফল, সাক-সব্জি, মাছ ইত্যাদি সুষম আহারের সাথে মধ্যপান, ধূমপান ইত্যাদি অভ্যাস পরিত্যাগ করার দরকার। হোল গ্রেন, লো-ফ্যাট ফুড বেশী খাওয়া প্রয়োজন। মনে রাখা দরকার যে প্রস্টেট ক্যান্সার প্রাথমিক পর্যায়ে ধরা গেলে তাকে সারানো সম্ভব।  

Explore & Subscribe YouTube Channel

তথ্যসূত্রঃ

  1. Leslie SW, Soon-Sutton TL, Sajjad H, Siref LE. Prostate Cancer. 2021 Feb 14. In: StatPearls [Internet]. Treasure Island (FL): StatPearls Publishing; 2021 Jan–. PMID: 29261872.
  2. Litwin MS, Tan HJ. The Diagnosis and Treatment of Prostate Cancer: A Review. JAMA. 2017 Jun 27;317(24):2532-2542. doi: 10.1001/jama.2017.7248. PMID: 28655021.
  3. Dunn MW, Kazer MW. Prostate cancer overview. Semin Oncol Nurs. 2011 Nov;27(4):241-50. doi: 10.1016/j.soncn.2011.07.002. PMID: 22018403.
  4. Rawla P. Epidemiology of Prostate Cancer. World J Oncol. 2019;10(2):63-89. doi:10.14740/wjon1191
  5. Cuzick J, Thorat MA, Andriole G, Brawley OW, Brown PH, Culig Z, Eeles RA, Ford LG, Hamdy FC, Holmberg L, Ilic D, Key TJ, La Vecchia C, Lilja H, Marberger M, Meyskens FL, Minasian LM, Parker C, Parnes HL, Perner S, Rittenhouse H, Schalken J, Schmid HP, Schmitz-Dräger BJ, Schröder FH, Stenzl A, Tombal B, Wilt TJ, Wolk A. Prevention and early detection of prostate cancer. Lancet Oncol. 2014 Oct;15(11):e484-92. doi: 10.1016/S1470-2045(14)70211-6. PMID: 25281467; PMCID: PMC4203149.

Write your comments

%d bloggers like this: